pic_ms_iacd7_16_en.jpg

মানুষ বাঁচবে সততা ও স্বচ্ছতায়

User Rating:  / 3
PoorBest 

মানুষ দুইটি কারণে ঘুষ দেয়। প্রথমত, ঘুষ দেওয়া ছাড়া তার অন্য কোন উপায় থাকে না। দ্বিতীয়, সে যে সুবিধা পেল তা তার পাওয়ার কথা না, ঘুষের মাধ্যমে সে অন্যের সুবিধা নিজের করে নিলো।
উপায় না পেয়ে ঘুষ দেওয়ার আমার এক বাস্তব অভিজ্ঞতা আছে। পাসপোর্ট করতে গিয়েছিলাম, খুলনা পাসপোর্ট অফিসে। নামার সাথে সাথে দালালে ঘিরে ধরলো কে কত টাকায় করিয়ে দিবে বলতে লাগলো। অফিসে যাওয়ার আগেই ব্যাংকে টাকা জমা করে গিয়েছিলাম। শুনলাম, ঘুষ বারো থেকে পনেরো শত টাকা লাগবে। যাই-ই হোক, স্বাভাবিক নিয়মে জমা করতে গেলে একবার একটি করে ভুল ধরে আর ফেরত দেয়, এভাবে কয়েক বার করে বলল, কাটাকাটি ফর্ম গ্রহণ করা হবে না।
ফোন দিলাম ক্ষমতাসীন দলের থানার সভাপতিকে। আগে থেকে জানতাম দালালি বা ঘুষ ছাড়া হবে না। সে এক দালালের সাথে দেখা করতে বললো। দালাল যখন টাকার কথা বললো তখন সে দালালকে কয়েকটা গালি দিয়ে বললো অফিসে আমার কথা বলে দে।
দালাল অফিসে তার কথা বলে দিলো। কোন কাজ হলো না, উল্টো জিজ্ঞাসা করলো, সে কে? বুঝলাম, ঘুষ ছাড়া উপায় নেই। দালালকে এগারো শত টাকা পাসপোর্ট প্রতি ঘুষ দিলাম। কাটাকাটি ফর্মেই নির্ভুল পাসপোর্ট হাতে এলো।
তার আগে পুলিশ ভেরিফিকেশনে কিছু ঘাপলা আছে, যা লিখবো না। আমার যে সাহস নেই সে কথা "বৃত্তবন্দী"-তে লিখেছিলাম।
এটা আমার ন্যায্য পাওনা, আমি ঘুষ ছাড়া পাসপোর্ট পাওয়ার অধিকার রাখি কিন্তু অফিস আমাকে হয়রানি করছে, তাই বাধ্য হয়ে ঘুষ দিয়েছিলাম।
এবার আসি অন্য কথায়। কোন ব্যক্তি তিন সন্তান রেখে মারা গেল, যার দুই জন ছেলে অন্যজন মেয়ে। ছেলে দুইজন পরামর্শ করলো যে, তাদের বাবার সম্পত্তি থেকে বোনকে বঞ্চিত করবে এবং এর জন্য তারা ওয়ারিশ সনদ বা নামজারি করতে গিয়ে অবৈধ আর্থিক লেনদেন করে বোনকে বঞ্চিত করলো। এক্ষেত্রে তারা প্রচার করে বেড়াবে ঘুষ দিয়ে কাজ করাতে হয়। সে যে অন্যায্য সুযোগ নেয় সেটা ভুল করেও মুখে আনে না।
ইসলামী দৃষ্টি কোন থেকে দেখলে, শরীক ঠকানো বড়ই গুনাহর কাজ। আল্লাহ পাকের কাছে কোন অন্যায় করলে তিনি ক্ষমা করে দিতে পারেন। কিন্তু কারো হক নষ্ট করলে আল্লাহ পাক ক্ষমা করবেন না বরং ঐ লোকের নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে। ঘুষ নিয়ে যে ব্যক্তি এই ধরণের কাজে সহায়তা করে সেও পাপী।
আমি জানি না, উপায় না থাকলে যে ঘুষ দেওয়া হয় তার কোন দায় ঘুষদাতার উপর পড়বে কি না। পড়ুক আর না-ই পড়ুক, উপায় থাকুক আর নাইবা থাকুক ঘুষকে না বলতে হবে। নিজের জন্য, অনাগত ভবিষ্যতের জন্য সমাজের জন্য, রাষ্ট্রের জন্য। আমরা সুন্দর সমাজ চাই, স্বচ্ছ রাষ্ট্র ব্যবস্থা চাই। যেখানে ঘুষ বা দুর্নীতি বলে কিছু থাকবে না। মানুষ বাঁচবে সততা আর স্বচ্ছতা নিয়ে।

Comments   

 
0 #2 Md. Suruj Khan 2016-07-22 20:10
ঠিক তাই....... সালেহ ভাই
Quote
 
 
+1 #1 Kazi Abusaleh 2016-07-20 01:46
যা টিআইবির সাম্প্রতিক খানা জরিপেও প্রমানিত!
Quote
 

Add comment

Only the commentator have the whole liability for any comment.


Security code
Refresh

Posts by Year