pic_ms_iacd7_16_en.jpg

Login Form

Posts by Year


প্রকাশকাল 29/05/2017, 13:35 লিখেছেন surujbabu
55555
29
কয়েক দিন আগে যাত্রাপুর বাজারে গিয়েছিলাম একটি ইলেকট্রিক কেটলি ক্রয় করতে, তো পরিচিত এক দোকানী বললেন ১.৮ লিটার সাড়ে নয়শত টাকা দেন। আমি বললাম কম কিছু, তার উত্তর, ভাইজান কি যে বলেন! আপনার কাছে থেকে বেশি রাখবো, তা কি করে হয়? আমি বললাম আমার নোভা কোম্পানির লাগবে, সেটা তো আপনার কাছে নেই, আমি একটু অন্য দোকানে দেখি। অন্য দোকানে যেতেই সেই দোকানী ঐ একই কেটলি বললো তুই নিলে ৮৫০ টাকা, আমি বললাম ৮০০ টাকায় হয় না, সে বললো আর দশটা টাকা দে। একটি উদাহরণ মাত্র। ইলেকট্রিক চার্জার লাইট, চার্জার ফ্যান সহ অনেক প্রয়োজনীয় সামগ্রী (ইলেকট্রিক, ইলেকট্রনিক্স,...
প্রকাশকাল 29/05/2017, 11:51 লিখেছেন M.R.Rajib
55555
22
অভিযোগের প্রেক্ষাপটঃ লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ থানার হররাম গ্রামের সহজ, সরল ও দরিদ্র ব্যক্তি দীপু চন্দ্র রায়ের একমাত্র ছেলে শুভ চন্দ্র রায়(১২)। গত ২৩/০৪/২০১৭ ইং তারিখে কিছু সন্ত্রাসী তার সন্তান শুভকে অপহরন করে নিয়ে যায় এবং বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কৌশলে বিভিন্ন নম্বর ব্যবহার করে মুক্তিপন দাবী করতে থাকে। পরবর্তীতে ০২/০৫/২০১৭ তারিখে সংশ্লিষ্ট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন এবং পুলিশ সুপারের সহযোগিতার জন্যও তার নিকট ০৭/০৫/২০১৭ তারিখে একটি আবেদন করেন। ইতিমধ্যে টাকা লেনদেনের বিকাশ নম্বরের সূত্র ধরে সন্ত্রাসীদের একজনকে গ্রেফতার করা হয় এবং...
প্রকাশকাল 16/05/2017, 23:32 লিখেছেন Ashrafulalamashiq
00000
49
দক্ষিণ এশিয়ায় সমাজের বিভিন্ন স্তরে উগ্র মৌলবাদ এখন একটি রাজনৈতিক বাস্তবতা। এই মৌলবাদ চরমবাদে এবং চরমবাদ জঙ্গিবাদে রূপ নিচ্ছে। নির্মোহ বাস্তবতা হল, জঙ্গিবাদ এবং জঙ্গিবাদের সম্ভাব্য উত্থান এই অঞ্চলের শান্তি, নিরাপত্তা, উন্নয়ন ও সভ্যতার জন্য বড় আকারের হুমকি হিসেবে দেখা দিয়েছে।অর্থনৈতিক ও সামাজিক কারণে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির মধ্যে জঙ্গিবাদ বিস্তারের পরিধির তারতম্য থাকলেও এর পিছনে রাজনৈতিক ভূমিকা প্রায় একই। অপরাজনীতির কারণেই আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের মতো সমাজে জঙ্গিবাদের শিকড় খুব গভীরে। উদাহরণস্বরূপ, এই দুটি দেশেই জঙ্গি গোষ্ঠী এবং...
প্রকাশকাল 11/05/2017, 01:12 লিখেছেন শ্রাবন
00000
15
      পার্সেলনামা১সপ্তাহ দুয়েক পূর্বে দিনাজপুর থেকে রাজশাহীতে একটি পার্সেল পাঠাতে হয়েছিলো। সুন্দর করে প্যাক করে নিয়ে গিয়েছি। ভাজ করে যথাসম্ভব ছোট করে প্যাক করা হয়েছিলো। পার্সেল পাঠানোর কথা বলতেই তারা জিজ্ঞেস করলো, "ভিতরে কি আছে?" ভিতরে শার্ট আছে জানতে পেরে ১২০ টাকা চেয়ে বসলো। অবাক হওয়ার পালা, যে শার্ট ওটা দাম শ-পাঁচেকের বেশি হওয়ার কোন রকমের সুযোগ নেই, কিন্তু পার্সেল খরচ তার চার ভাগের এক ভাগ। আমি প্রথমে পাঠাতে রাজী হলাম না, সেখানকার কর্মকর্তা আমাকে একশত টাকা দিতে বলল। আমার তাও মনঃপুত ছিল না। কিন্তু যাকে পাঠাবো তার ঐ শার্ট...
প্রকাশকাল 06/05/2017, 10:36 লিখেছেন surujbabu
55555
64
প্রথমে ফেসবুকে ভাইরাল বিষয়টি নিয়ে লিখতেই হয়।ইনজামাম, আমাদের ছোট ভাই। অনেক সময় কারো রক্তের প্রয়োজন হলে, ওকে ফোন দিয়েছি, ও রক্ত দান করেছে। সম্প্রতি সে রক্তদানের জন্য বাগেরহাট ডক্টরস্ ক্লিনিকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর রক্ত দিতে পারবে বলে জানায় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ। শেষে রক্ত না লাগায় রাতে বাসায় ফিরে যায়। পরবর্তীতে ক্লিনিক থেকে ফোনে জানানো হয়, তার এইচআইভি পজেটিভ। ইনজাম আর পলাশ ভাই রিপোর্ট আনতে গেলে নানা টালবাহানা এবং স্বীকার করে এটা তাঁদের ভুল। এবং এই ক্লিনিকের মালিক গোপনে আঁতাত করতে চাইলেও ইনজাম ও পলাশ ভাই মেনে নেন নি বলেই ডাক্তার...
প্রকাশকাল 29/04/2017, 19:13 লিখেছেন surujbabu
55555
69
২০০৯ সালে ইয়েস সদস্য হিসাবে বাগেরহাট সনাকে অন্তর্ভূক্তির প্রায় এক বছর পর থেকে যথা সম্ভব সক্রিয়ভাবে কাজ করেছি এবং স্বজন  হিসাবেও সক্রিয়। যখন থেকে সনাক ও বাগেরহাট সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সভায় থাকার সুযোগ হয়েছে, তখন থেকে একটি কথা-ই বার বার শুনতে হয়েছে, তা হলো - নেই। ডাক্তার নেই, এনথেসিয়া নেই, নার্স নেই, বয় নেই, পরিচ্ছন্নকর্মী নেই ইত্যাদি ইত্যাদি। এই নেই মানে অপ্রতুল। ৫০ বেডের হাসপাতালকে ১০০ বেড ঘোষণা করা হয়েছে বেশ কয়েক বছর আগে। ৫০ বেডে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার থাকার কথা ২৪ জন, সেখানে আছে ১১ জন। ৫০%-এর কম ডাক্তার নিয়ে, অপ্রতুল কর্মী...
প্রকাশকাল 27/04/2017, 00:37 লিখেছেন surujbabu
55555
45
যখন দেশের চিকিৎসক আমার সমস্যা নির্ণয় ও যথাযথ চিকিৎসা দেওয়ার ক্ষেত্রে দক্ষতার পরিচয় দিতে পারছেন না, তখন সিদ্ধান্ত নিয়েছি ভারত যাবো। নিজের পাসপোর্ট থাকলেও স্ত্রী'র পাসপোর্ট নেই বিধায় নিজেরা যথাযথভাবে পূরণ করে ফর্ম জমা দিয়েছিলাম পাসপোর্ট অফিসে।সাত/আট দিনে পরে ভেরিফিকেশনের জন্য ফোন দিলেন, বাড়ি আসলেন, কথা শেষে অফিস খরচ দাবী করে বসলেন। সাফ জানিয়ে দিলাম অফিস খরচ আমার পক্ষে দেওয়া সম্ভব না। যদি প্রয়োজন পড়ে ফোন দিবো। কিন্তু আমি ফোন করি নি।যথা সময়ে পাসপোর্ট আনতে গিয়ে দেখি তৈরি হয় নি। কেন হয় নি, এমন প্রশ্নে জানতে পারলাম ভেরিফিকেশন...
প্রকাশকাল 24/04/2017, 17:15 লিখেছেন M.R.Rajib
55555
69
অভিযোগের প্রেক্ষাপটঃ লালমনিরহাটের সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের এক ব্যক্তি পরিচিত একজনের কাছ থেকে শুনে ২০১৭ সালের জানুয়ারী মাসে টিআইবি’র এলাক এ আসেন। জমির দখল সংক্রান্ত বিষয়ে আইনী পরামর্শ নিয়ে প্রথমবার ফিরে যান। তবে মার্চ মাসের এক তারিখে আবার হাজির হন শিক্ষা সংক্রান্ত ভয়াবহ জালিয়াতি/দুর্নীতির গোপনীয় একটি অভিযোগ নিয়ে। নিজের পরিচয় গোপন রাখার শর্তে তিনি জানান, স্থানীয় গবাই মধ্যপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুইজন সহকারী শিক্ষক জাল/ভূয়া সার্টিফিকেট দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চাকুরী করে আসছে। যারা নিজেরাই জালিয়াতির মাধ্যমে ভূয়া সার্টিফিকেট...
প্রকাশকাল 06/04/2017, 22:18 লিখেছেন surujbabu
55555
314
ফেসবুক আমাদের সামাজিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন আনার পাশাপাশি অনেক জিনিস সামনে এনেছে। ইদানিং অনেক আন্দোলনের ডাক দেওয়ার স্থান এই ফেসবুক। প্রতিবাদের একটি প্লাটফর্ম, তাছাড়া আমাদের সামাজিক নানান অসংগতি তুলে ধরা হচ্ছে। কিছু অসাধু লোক এর অপব্যবহার করছে না, তা কিন্তু নয়। কিন্তু আমাদের বাগেরহাটের কিছু মানুষ তাদের আস্থার স্থান, প্রতিবাদের স্থান, অভিযোগ জানানোর প্লাটফর্ম হিসাবে ব্যবহার করছে এই ফেসবুককে। হয়তো আরো অনেক জেলাতে এর চর্চা হচ্ছে বা হবে, কিন্তু আমি মনে করি আমরা কিছুটা হলেও সফল। নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি অনেকের থাকতে পারে,...
প্রকাশকাল 04/04/2017, 11:56 লিখেছেন M.R.Rajib
55555
88
প্রেক্ষাপটঃ   অনেক স্বপ্ন নিয়েই বেঁচে থাকে মানুষ। আর সেই স্বপ্নগুলোকে বাস্তবে রূপ দিতে মানুষ চালায় ঐকান্তিক প্রচেষ্টা। তেমনিভাবে স্বপ্ন দেখেছিলেন লালমনিরহাটের সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের চরখাটামারী গ্রামের যুবক ইদ্রিস আলী। পরিবারের স্বচ্ছলতার আশায় বিদেশ পাড়ি জমানোর স্বপ্ন পূরনে ইদ্রিস আলী পার্শ্ববর্তী দালালদের (আবেদ আলী ও তার দাদা শশুর গফুর আলীর) প্রোরচনায় পড়েন। দালালদের খপ্পরে পরে পিতার জায়গা জমি বিক্রি করা নগদ ৫,০০,০০০/- (পাঁচ লক্ষ) টাকা তুলে দেন নাম ঠিকানা না জানা এক কোম্পানীর প্রতিনিধির কাছে। দীর্ঘদিন কালক্ষেপনের পর...
প্রকাশকাল 02/04/2017, 18:34 লিখেছেন kazimijan
55555
133
জেলখানার বন্দি মানুষের জীবন কিভাবে কাটে তা দেখার শখ ছিলো বহুদিনের। কিছুদিন আগের কথা - আমি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়েছিলাম। সেখানে সুরুজ ভাইয়ের সাথে দেখা - তিনি বললেন,  জেলখানায় যাবা নাকি, আমার এত ভাইকে দেখতে?   আমার জন্য এটি একটি ভালো প্রস্তাব ছিলো। আমি সুযোগটি গ্রহন করলাম। বললাম,  যাবো। এটি বাগেরহাট জেলা কারাগারের ঘটনা।  প্রথমে জেলখানার গেটের পাশে একটি দোকানে মোবাইল রাখলাম। কারন- ভেতরে মোবাইল নিয়ে প্রবেশ নিষেধ। ভিতরে ঢুকে ভাইয়ের সাথে পাশ আনতে। পাশ যিনি দিবেন, তার কাছে গেলে বলছেন এখন বেলা শেষ পর্যায়ে এখন তো...
প্রকাশকাল 25/03/2017, 19:42 লিখেছেন surujbabu
55555
98
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন মাষ্টার্স পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ করেও তা অনিবার্য কারণ বশতঃ স্থগিত করা হয়েছে। স্থগিতের কারণটা হলো দুর্নীতির কারণে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক জেলে। একজন ব্যক্তি অপকর্মের কারণে জেলে ঢুকলো, সাথে নিয়ে গেল হাজার হাজার শিক্ষার্থীর ভাগ্য। আমাদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কি এক ব্যক্তি নির্ভর প্রতিষ্ঠান, নাকি পরীক্ষা স্থগিত করে অপকর্ম ঢেকে ঐ দুর্নীতির দায়ে গ্রেফতার ব্যক্তিকে মুক্ত করার অপচেষ্টা।আন্দোলন করে আমরা ভাষা পেয়েছি, স্বাধীন দেশ পেয়েছি। আর এখন আন্দোলন হচ্ছে অপকর্ম ঢাকার জন্য। এক চালককে আদালত সাজা দিলো, পরিবহন ধর্মঘট...
প্রকাশকাল 24/03/2017, 16:35 লিখেছেন surujbabu
55555
71
একজন শিক্ষকের আচরণ কেমন হওয়া উচিৎ? তিনি শুধু বইয়ের অক্ষর শিক্ষা দেন তা কিন্তু নয়, তাঁর প্রভাবে প্রভাবিত হয় অনেক শিক্ষার্থী।একটি উদাহরণ দেওয়া যাক, আমি তখন অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে। আমার অত্যন্ত শ্রদ্ধেয় একজন স্যারের কাছে হিসাববিজ্ঞান পড়তে গিয়েছি, কথা প্রসঙ্গে স্যার বললেন, তাঁর বড় ছেলেকে স্কুল থেকে একটা অংক করিয়ে দিয়েছে। সেই একই অংক স্যার অন্যভাবে করিয়েছেন। স্যারের ছেলে বলছে, বাবা তুমি বোঝ না, এভাবে নয় আমার স্যার যেভাবে করিয়ে দিয়েছে ঐটা-ই হবে।স্যার বললেন, সে তার স্যারের দ্বারা যথেষ্ট প্রভাবিত, তাই আমার অংক পছন্দ হয় না।এবার আসি...
প্রকাশকাল 23/03/2017, 22:23 লিখেছেন surujbabu
55555
58
মাস খানেক আগে আরিফের ফোন।- ভাইয়া, আমার এক ভাই ওয়েল্ডিং ওয়ার্কশপ দিবে কিন্তু পরিবেশের ছাড়পত্র ছাড়া বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়া যাচ্ছে না।- তাহলে ছাড়পত্র নাও।- পিয়ন ঘুষ চায়।- তুমি কি বাগেরহাট, থাকলে কলেজের সামনে চলে আসো।আরিফ এসে যা জানালো তা হল- তাদের প্রচার পত্রে যে ফোন নম্বর দেওয়া সেখানে ফোন করলে যে ব্যক্তি ফোন রিসিভ করেন সে ১২,০০০ টাকা দাবী করেন। অফিসে স্ব-শরীরে গেলে পিয়ন জানায়, আপনি তো গরীব মানুষ কারো কাছে কিছু বলা লাগবে না ১৪,৫০০ টাকা দিবেন কাজ হয়ে যাবে। শুনে টিআইবি বাগেরহাটের এরিয়া ম্যানেজারকে বিষয়টি অবহত করলাম। তিনি ঐ অফিসের...
প্রকাশকাল 22/03/2017, 23:48 লিখেছেন surujbabu
55555
61
যাত্রাপুর ইউনিয়নের সকল নাগরিকের ব্লাড গ্রুপিং কার্যক্রমের শেষাংশে ডেটাবেজ তৈরি নিয়ে মাথায় অনেক চাপ নিয়ে যখন যাত্রাপুর বাজারে ঢুকছি এমন সময় মেজ চাচার ফোন। বাসায় আয়। বাসায় যেয়ে যা শুনলাম তা হল-স্বরূপকাঠি থেকে কিছু লোক এসে যাত্রাপুর ব্যবসা করে। তাদের একজনের স্ত্রী বাগেরহাটের এক ব্যাংক থেকে এক লক্ষ তেইশ হাজার টাকা উত্তোলন করেছেন। তাদের এই বড় অংকের টাকা আমার মেজ চাচার কাছে গচ্ছিত রেখে প্রতিদিন  যে পরিমাণ টাকা প্রয়োজন সেই পরিমাণ টাকা নিয়ে ব্যবসা করেন। এ দিন টাকা রাখতে এলে তাদের সামনে মেজ চাচা দেখেন ব্যাংকের ট্যাগ করা ৫০০ টাকার...
প্রকাশকাল 18/03/2017, 21:46 লিখেছেন M.R.Rajib
55555
119
প্রেক্ষাপটঃ   লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের তেলিপাড়া গ্রামের ২৩ বছরের মেয়ে রাজিয়া সুলতানা। গত ৪ অক্টোবর’১৬ তারিখ গভীর রাতে পুলিশ তাদের বাড়ির আঙ্গিনার গেট ভেঙ্গে তার বাবা মোঃ রফিকুল আলমকে তুলে নিয়ে যাওয়ার জন্য ভেতরে ঢুকে। পুলিশ পরিচয় দিয়ে তার বাবাকে গ্রেফতার করতে গেলে সাহসী মেয়ে রাজিয়া পুলিশকে জিজ্ঞেস করেন তারা কি অপরাধে গ্রেফতার করতে এসেছে? তাদের কাছে কোন ওয়ারেন্ট আছে কিনা? পুলিশ এর জবাবে বলেন, দীর্ঘদিনের বিদ্যুতের বকেয়া বিল পরিশোধ না করার অপরাধে বিদ্যুত বিভাগের করা মামলায় তার বাবার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরওয়ানা...
প্রকাশকাল 18/03/2017, 20:56 লিখেছেন M.R.Rajib
55555
117
  লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলা শিক্ষা অফিসের কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারীর যোগসাজসে একটি মহল চাতাল হিসেবে ব্যবহৃত, দরজা-জানালা ও বেড়াবিহীন একটি চালা ঘরকে অবৈধ পন্থায়  বিদ্যালয় হিসেবে জাতীয়করণের জন্য পায়তারা চালায় ...! অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায় যখন এই চাতালে ঝুলানো হয় বিদ্যালয়ের নামে একটি সাইনবোর্ড। শুধু কি তাই ? অভিযোগ আছে, অবৈধ পন্থায় শিক্ষক নিয়োগ দেয়া নিয়ে চলে মোটা অংকের আর্থিক লেনদেন ...!  শুধু এটিই নয়, উক্ত উপজেলায় প্রায় ৩০টির মত এরকম কার্যক্রম বিহীন বা অসম্পূর্ণ বিদ্যালয়কে জাতীয়করণের প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানা যায়।...
প্রকাশকাল 12/03/2017, 17:04 লিখেছেন Mdmehedi
55555
70
কিছুবছর আগেও এদেশের মেয়ে শিশুদের খেলার প্রধান উপকরণ ছিল পুতুল। এখনো যে নেই তা বলা যাবে না তবে অনেকাংশেই কম। শিশুদের এই খেলার মধ্যে ছিল ছোট ছোট কাপড়ের পুতুল বিয়ে দেওয়া, রান্না করা, ছোট ছোট কুঁড়েঘর করে এক বন্ধুর পুতুলের সাথে আরেক বন্ধুর পুতুলের বিয়ে। এমনকি গ্রামের পরিবেশে বেড়ে ওঠা সফল নারীদের অনেকেরই এই খেলার সাথে সরাসরি পরিচয় আছে।   আর এর মধ্যে দিয়ে মেয়েরা তাদের নারী জীবনের ঘরদোর সামলানোর প্রথমিক পাঠ চুকিয়ে নিয়েছে। নারীদের কাজ হলো বিয়ে করা, সন্তান জন্মদান, রান্নাবান্না করা ও অন্যান্য মেয়েলি কাজ করা এই ধারণাটা  পুতল খেলার...
প্রকাশকাল 12/03/2017, 10:50 লিখেছেন M.R.Rajib
55555
85
প্রেক্ষাপটঃ গ্রামের সহজ, সরল ও দরিদ্র ব্যক্তি আজিজার রহমান, অল্প কিছু পন্য নিয়ে ছোট্ট একাটি মুদি দোকান চালিয়ে সংসারের ব্যয় নির্বাহ করেন। দারিদ্রতার মধ্যেও তিন সন্তানকেই পড়াশুনা করাচ্ছেন স্থানীয় মানসিকা কিন্ডারগার্টেন ও জুনিয়র হাইস্কুেল। তিন সন্তানের মধ্যে বড় সন্তান প্রতিবন্ধি, নাম শরীফুল হক। অভিযোগকারীর প্রতিবন্ধি সন্তানটি উক্ত স্কুেল সপ্তম শ্রেনীতে লেখাপড়া করে। ২০১৫ সালে ঐ সন্তান প্রতিবন্ধি শিক্ষা উপবৃত্তি ভাতা হিসেবে ৩৬০০ টাকা দেয় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এর পর প্রতিবন্ধি শিক্ষা উপবৃত্তি ভাতার আর কোন টাকা দেয়নি।...
প্রকাশকাল 05/03/2017, 01:03 লিখেছেন tariqulislambaki
55555
69
গত ২৮শে ফেব্রুয়ারি ২০১৭, রোজ মঙ্গলবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সনাক কার্যালয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর  সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) কর্তৃক এক প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয় । এবারের প্রশিক্ষণের বিষয় ছিল প্রতিবেদন তৈরি, সফলতার কাহিনি প্রনয়ণ, জন-সাংবাদিকতা, সভার কার্যবিবরণী লেখা এবং ব্লগ । গুরুত্বপূর্ণ এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সনাকের সহঃসভাপতি ও ইয়েস উপকমিটির আহ্বায়ক প্রকোশলী ইঞ্জিনিয়ার জনাব রফিকুল ইসলাম মিয়া । উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালা পরিচালনা করেন সিলেট ক্লাস্টার এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার...
প্রকাশকাল 26/02/2017, 21:58 লিখেছেন Maruf
55555
63
শিক্ষক যাকে মানুষ গড়ার কারিগর বলা হয়, কখনও ভাবিনি সেই শিক্ষক নিয়ে আমি এমন কিছু লিখব, তবে সকল নীতিবান ও আদর্শ শিক্ষকদের নিয়ে লিখছিনা, লিখছি সেই সকল অসাধু শিক্ষকদের নিয়ে যারা নিজেদের দায়িত্তে অবহেলা করেন এবং নিজের ব্যাবসাকে বেশি প্রাধান্য দেয়, তাদের কাছে খুব জানতে ইচ্ছা করে যে সরকার কি তাদের বেতন দেয়না?? যদি তারা বেতনভুক্ত শিক্ষক হয়ে থাকেন তাহ্লে কেন তারা শিক্ষক্তার এই মহান পেশা আর ব্যাবসাকে এক করে ফেলেন?? ...
প্রকাশকাল 21/02/2017, 23:35 লিখেছেন surujbabu
55555
94
আমি উপস্থাপনা ভাল করতে পারি না, তবুও বছরে ২০/২৫ টি ছোট-বড় উপস্থাপনা করে থাকি। তবে একুশে ফেব্রুয়ারি ২০১৭ সালের উপস্থাপনা বলি বা সঞ্চালনা বলি, আমার জীবনের অন্যতম একটি সেরা পাওয়া। এটি ছিলো স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার জন্য সেবাগ্রহীতা আর সেবাদাতাদের একটি প্রশ্নোত্তর পর্ব। যার প্রতিটি পদক্ষেপ আমাকে মুগ্ধ করেছিলো, উৎসাহ যুগিয়েছে সামনে ভাল কিছু করার জন্য। ২০-২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ জেলা প্রশাসন বাগেরহাট ও সনাক আয়োজিত তথ্য মেলার দ্বিতীয় দিনে আয়োজন করা হয় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়, বাগেরহাট সদর; উপজেলা ভুমি অফিস, বাগেরহাট সদর ও জেলা...
প্রকাশকাল 17/02/2017, 23:38 লিখেছেন surujbabu
55555
94
প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি অপ্রাতিষ্ঠানিক নৈতিক শিক্ষার যে প্রয়োজনীয়তা রয়েছে, তা আমরা প্রতিনিয়ত অনুভব করতে পারছি। নৈতিকতার অভাবে আমাদের দেশে বাড়ছে দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, অন্যায়-অত্যাচার, মাদক ইত্যাদি। বাস্তবতার দিকে তাকালে আমাদের নৈতিক শিক্ষা আর দেশ প্রেমের অভাব রয়েছে কি না পাঠক-ই ভাল বুঝবেন।আমি যেহেতু কোচিং পরিচালনার সাথে যুক্ত সেহেতু নানান মানসিকতার, নানান পরিবেশের শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলার সুযোগ হয়েছে। দেখেছি, পরিবেশ, অর্থনৈতিক অবস্থা আর পারিবারিক দর্শন একটি মেয়ে/ছেলের নৈতিকতার উপর কতখানি প্রভাব বিস্তার করতে পারে।...
প্রকাশকাল 15/02/2017, 00:08 লিখেছেন surujbabu
55555
130
লেখার শুরুতে কিছু নিজেস্ব অপ্রাসঙ্গিক চিন্তা তুলে ধরতে-ই হয়। অনেক দিন ধরে ভাবছি এই চিন্তাগুলো সবাইকে জানাবো। এটা আব্বুকে নিয়ে, পরে আমার দাদুকে নিয়ে একটি চিন্তা কোন এক লেখায় জানাবো।মাঝে মাঝে চিন্তা করি আমার আব্বু কেন রাজনীতি করলেন না! শুনেছিলাম কোন এক রাজনৈতিক দলের জেলা পর্যায়ের নেতা আব্বুকে অফার করেছিলেন রাজনীতি করার জন্য, তিনি করেন নি। তিনি রাজনীতি নয়, শ্রমের নীতিতে বিশ্বাসী ছিলেন।কিন্তু আমি এ ভুল করতে চাই না, কেননা এখনকার সময়ে দেখছি কবিরাজের ছেলে কবিরাজের মৃত্যুর পর কবিরাজী শুরু করছে। পীর সাহেবের ছেলে পীর সাহেব হচ্ছে।...
প্রকাশকাল 12/02/2017, 19:06 লিখেছেন kazimijan
55555
92
দুর্নীতি একটি সামাজিক ব্যাধি, দুর্নীতের প্রভাবে সাধারন জনগন যেমন পিছিয়ে পড়ছে,  তেমনি দেশ সার্বিক  উন্নয়ন অবকাঠামো থেকে বাধা পড়ছে। আমলাতান্ত্রিক জটিলতা এবং প্রশাসনিক দুর্বলতার কারনে  দুর্নীতি রোধ করা সম্ভব হচ্ছে না। এই অবস্থার মধ্যে বাগেরহাট সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা শরীফ নজরুল ইসলাম তার উপজেলাকে " দুর্নীতি বিরোধী উপজেলা প্রশাসন " গঠনের লক্ষে একটি প্রকল্প কার্যক্রম হাতে নেন। উপজেলায় আগত সেবা গ্রহিতাদের  সহজ সেবা প্রাপ্তির লক্ষে "সম্মিলিত হেল্প ডেস্ক"গঠন করেন এবং উপজেলার আওতাধীন সকল দপ্তরের গণশুনানীর ব্যবস্থা করেন এবং...
প্রকাশকাল 11/02/2017, 00:30 লিখেছেন surujbabu
55555
88
আমার সাধারণত যে জেলা শহরে বেশি যাতায়াত তা আমার নিজের এবং প্রিয় জেলা বাগেরহাট। এই শহরে ট্রাফিক জ্যাম বলে কিছু আছে বলে মনে হয় না। তারপরও দেখি পুলিশ সুপার বের হওয়ার সময় ট্রাফিকের সে কি দায়িত্ব পালন। রিক্সাওয়ালাকে ধমক, অটো ড্রাইভারের গাড়ির পিছনে লাঠির আঘাত ইত্যাদি। তিনি চলে গেলেন তো, দায়িত্ব শেষ।দারুণ ব্যাক পেইন, বাগেরহাট-খুলনা-ঢাকার বিভিন্ন ডাক্তারের বিভিন্ন মতামতের প্রতি সম্মান রক্ষা না করতে পেরে ভারতে চিকিৎসার জন্য যাবো বলে মন স্থির করে, ভারতীয় এম্বাসির খুলনা শাখায় আবেদন জমার দেওয়ার উদ্দেশ্যে খুলনা গিয়েছিলাম সাথে ছিলো তুষার।...
প্রকাশকাল 17/01/2017, 11:47 লিখেছেন mahadir
55555
94
কাদম্বরী'র রবি   গত সপ্তাহে রবীন্দ্রনাথের প্রিয়তমা বৌঠান ‘কাদম্বরী দেবী'কে নিয়ে লেখা একটি উপন্যাস পড়েছি। নাম ছিল ‘কাদম্বরী দেবীর সুইসাইড নোট', লিখেছেন রঞ্জন বন্দোপাধ্যায়। উপন্যাসটি স্মৃতিচারনধর্মী এবং বর্নণাত্বক রীতিতে (Narrative form) লেখা। এটি নিছক একটি উপন্যাস নয়; কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুর বাড়ির একটি প্রামাণ্য দলিল যেখানে উল্লেখ রয়েছে মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুরের চাপিয়ে দেয়া অলিখিত সংবিধান যেটিকে অমান্য করার দুঃসাহস স্বয়ং রবীন্দ্রনাথ করেননি।    আদতে এটি একটি কাল্পনিক সুইসাইড নোট যেটি কাদম্বরী দেবী আত্নহত্যার পূর্বে...
প্রকাশকাল 09/01/2017, 11:55 লিখেছেন surujbabu
55555
75
টিআইবি আয়োজিত ২০১৭ সালের আলোকচিত্র প্রতিযোগীতায় শিক্ষার একটি বিষয় তুলে ধরেছিলাম, যদিও সেই আলোকচিত্রটি মনোনয়ন পায় নি, তারপরও ভাবলাম বিষয়টি নিয়ে একটি ব্লগ লেখা জরুরি। কেননা, বছরের শুরুতেই শিক্ষাখাতে এই নিরব দুর্নীতিটি ঘটে, যা আসলে আমরা অনেক ক্ষেত্রে বুঝতেও পারি না।বছরের প্রথমে শিক্ষার্থীদের হাতে পাঠ পরিকল্পনা অর্থাৎ সিলেবাস তুলে দেওয়া হয়। শিক্ষক সমিতি থেকে প্রদত্ত যে সিলেবাস, তাতে বাংলা এবং ইংরেজি রচনা/অনুচ্ছেদ/সারাংশ ইত্যাদির নাম না দিয়ে একটি নির্দিষ্ট বইয়ের নম্বর ও পৃষ্ঠা নম্বর দেওয়া হয়। এতে করে শিক্ষার্থীরা ঐ বই বাজার থেকে...
প্রকাশকাল 01/01/2017, 00:01 লিখেছেন surujbabu
55555
85
আমাদের সমাজের বেশির ভাগ মানুষ যেকোন অফিসে গেলে খোঁজে কোথায় ঘুষ দেওয়া যায়। এদের বিশ্বাস ঘুষ ছাড়া কাজ হয় না, আবার একটা শ্রেণি আছে যারা নিজের কাজ নিজে সময় দিয়ে করতে আগ্রহী না। দালাল দিয়ে বা ঘুষের মাধ্যমে কাজ করাতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। পরে আবার এরাই বেশ বড় গলায় বলে ঐ অফিসে কাজ করাতে এতো ঘুষ লাগে। দেশটা রসাতলে গেল! কিন্তু নিজের বিচার কখনও-ই করে না যে, সে কিন্তু ঘুষ প্রদানকারী। ঘুষ গ্রহণকারীর যদি ৯০% দোষ হয় তো প্রদানকারীর বাকি ১০% হবেই। Win Win game  খেলে অফিসের দোষ দিলে হবে না। যদিও কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম দেখা যায়, অনেকে...
প্রকাশকাল 31/12/2016, 23:51 লিখেছেন mahadir
55555
78
A Failed Attempt to Decipher KAFKA    Of late, I finished perusing two much acclaimed fictional works of World-Literature by Czech author Franz Kafka. To tell the trurh, it was the gloomiest experience I had while reading a writer from Europe. The book, 'Metamorphosis and Other Stories', consisted of renowned literary creations by this genius along with a succinct but painstaking biographical sketch. But I intended putting my total concentration only upon two stories (Novella, in other sense), 'The Metamorphosis' & 'The...
প্রকাশকাল 22/12/2016, 15:45 লিখেছেন Mdmehedi
55555
74
‘বিশ্বজোড়া পাঠশালা মোর, সবার আমি ছাত্র’ কথাটির মধ্যে একটি শক্তিশালী বাস্তবতা লুকিয়ে আছে। কিন্তু আমাদের সংকীর্ণতার কারণে আমরা সবার ছাত্র হতে পারি না। তাই আমাদের চারপাশেই জ্ঞানের, শিক্ষার অপার সুযোগ থাকা সত্বেও আমরা তা গ্রহণ করতে অক্ষম।অনেকের দায়িত্বের মধ্যে পড়া ছোট ছোট বিষয় যা খুব সহজেই এড়িয়ে যাওয়া যায়, তা নিষ্ঠার সাথে করতে দেখে, ছোট ছোট ভুল ধরিয়ে দেওয়ার মধ্য দিয়ে যে শিক্ষা গ্রহণ করা যায় সে শিক্ষার গ্ররুত্বও কম কিসে। এমনি শিক্ষার একটি সম্ভাবনাময় জায়গা হলো টিআইবি। টিআইবর সাথে কাজ করা মানুষগুলো যেন এক একজন চলন্ত শিক্ষা। না,...
প্রকাশকাল 20/12/2016, 20:35 লিখেছেন Mdmehedi
00000
41
‘বিশ্বজোড়া পাঠশালা মোর, সবার আমি ছাত্র’ কথাটির মধ্যে একটি শক্তিশালী বাস্তবতা লুকিয়ে আছে। কিন্তু আমাদের সংকীর্ণতার কারণে আমরা সবার ছাত্র হতে পারি না। তাই আমাদের চারপাশেই জ্ঞানের, শিক্ষার অপার সুযোগ থাকা সত্বেও আমরা তা গ্রহণ করতে অক্ষম।অনেকের দায়িত্বের মধ্যে পড়া ছোট ছোট বিষয় যা খুব সহজেই এড়িয়ে যাওয়া যায়, তা নিষ্ঠার সাথে করতে দেখে, ছোট ছোট ভুল ধরিয়ে দেওয়ার মধ্য দিয়ে যে শিক্ষা গ্রহণ করা যায় সে শিক্ষার গ্ররুত্বও কম কিসে। এমনি শিক্ষার একটি সম্ভাবনাময় জায়গা হলো টিআইবি। টিআইবর সাথে কাজ করা মানুষগুলো যেন এক একজন চলন্ত শিক্ষা। না,...
প্রকাশকাল 18/12/2016, 00:16 লিখেছেন Md. Suruj Khan
55555
207
কথা ছিলো ঢাকা থেকে ফিরেই একটি ব্লগ লিখবো, কিন্তু শরীর সেই কথা রাখতে দিলো না, তাই তো একটু দেরি হলো। ৯ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস উপলক্ষ্যে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) ৮ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে আয়োজন করে মানববন্ধনের। আমরা যারা দেশের বিভিন্ন জেলা বা উপজেলাতে দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত তাদের থাকার ব্যাপারটা আগে জানতাম না। শুধু জানতাম, অনুপ্রেরণামূলক পুরষ্কার দেওয়া হবে এবং তা যার যার সনাক অফিস থেকে। কিন্তু যখন জানলাম যে ঢাকাতে দেওয়া হবে মনের মধ্যে একটি ভালো...
প্রকাশকাল 06/12/2016, 21:28 লিখেছেন Kazi Abusaleh
55555
147
ফরাসি বিপ্লবের মধ্য দিয়েই মুক্ত চিন্তা ও লেখা-লেখির পথ সুগম হয়। সময়ের বিবর্তনে শিল্প বিপ্লবের শুভসূচনা হয় যার অনূঘটকগুলো ছিল ইঞ্জিন এবং রেলপথ তথা চাকার আবিষ্কার। শুরু হল ভিক্টোরিয়ান প্রিয়ড। ব্রিটিশদের উন্নয়নের ইতিহাসে ভিক্টোরিয়ান প্রিয়ড স্বর্ণযুগ হিসেবে বিবেচিত যখন তারা প্রায় অর্ধপৃথীবি শাসন করত। বিভিন্ন শাসিত অঞ্চল থেকে প্রচুর পরিমান অর্থ আসা শুরু হল, রাজধানী লন্ডন কে ঘিরে শিল্প কারখানা গড়ে উঠল, অর্থব্যবস্থা কৃষি থেকে শিল্পে রুপ নিল। উপছেপড়া মানুষগুলোর স্থান সংকুলান করতে শহরের ফুটফাতে আশ্রয় নিল, গড়ে উঠল হাজারো বস্তি, ঘিঞ্জিতে...
প্রকাশকাল 02/12/2016, 23:51 লিখেছেন Kazi Mijanur Rahman
55555
156
  বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রের সকল ক্ষমতার মালিক জনগন।  সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের নাগরিক সেবা পাওয়া  জনগনের অধিকার। এই অধিকার বলে নাগরিক তার ইচ্ছা অনুযায়ী সকল দপ্তরের খোজ খবর নিতে পারে এবং তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ অনুযায়ী সরকারি দপ্তরের বিভিন্ন তথ্য দিতে  সরকারি কর্মকর্তারা বাধ্য। আমরা যারা সচেতন নাগরিক আমাদের দায়িত্ব মানুষকে সচেতন করা, তাদের মধ্যে সরকারি সেবা পাওয়ার পদ্ধতি সহজ করে বুঝিয়ে দেওয়া। দেখা যায়-  এসকল বিষয় গুলো সাধারন জনগন ঝামেলা মনে করে, তারা এসব নিয়ে ভাবে না। কিছু লোক আছে - তাদের কাজের প্রয়োজনে...
প্রকাশকাল 01/12/2016, 14:01 লিখেছেন Mosharraf Hosen raju
44444
134
  "হাসপাতাল" শব্দটা বলেই যেন চোখের সামনে ভেসে ওঠে রুগীদের গিজগিজে ভিড়, ডাক্তারের অপ্রতুলতা, দালালদের দৌরাত্ম্য কিংবা সরকারী ঔষধ ফার্মেসিতে চালানের দৃশ্য। এ দৃশ্য যেন, বাংলাদেশের প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্স কিংবা সদর হাসপাতাল বা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের। কিছুদিন পূর্বেও এমনি একটা দৃশ্য দেখা যেত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (মমেকহা)। যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা, দুর্গন্ধ, দালালদের দৌরাত্ম্য, ডাক্তারের অপ্রতুলতা, পর্যাপ্ত ঔষধ সরবারহ না থাকা কিংবা বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য অতিরিক্ত টাকা দেওয়া বা বাহিরের কোনো ক্লিনিকে...
প্রকাশকাল 20/11/2016, 00:28 লিখেছেন Md. Suruj Khan
55555
214
প্রতিটি বিষয়ে মানুষ ভেদে মতামত ভিন্ন হবে, এটাই স্বাভাবিক। অন্য একটি বিষয়ে লিখবো ভাবছিলাম, হঠাৎ মাথায় এলো ইয়েসদের অনুপ্রেরণামূলক সম্মাননা প্রদান বিষয়ে কিছু লিখি। অনেক ইয়েসদের মতামত পড়ার বা শোনার সৌভাগ্য হয়েছে। এক্ষেত্রে আমার মতামত হলো, টিআইবি’র এই পদক্ষেপের সাথে আমি শতভাগ সহমত।মানুষ যে কোন কাজ করে কোন না কোন স্বার্থে। আমি স্বেচ্ছাসেবক হিসাবে কাজ করি একটি স্বার্থে, সেই স্বার্থটি হলো, সুন্দর একটি দেশ পাবার স্বার্থ। আমার দেশ সুন্দর হলে আমার পরবর্তী প্রজন্ম অবশ্যই আরো বেশি সুন্দর-সুখী-দুর্নীতিমুক্ত জীবন-যাপন করতে পারবে। এই ধরণের...
প্রকাশকাল 19/11/2016, 23:54 লিখেছেন Reja
55555
152
শৈশবকাল থেকে একটি স্বপ্নকে আকড়ে ধরে ধীরে ধীরে যখন স্বপ্নের দারপ্রান্তের কাছাকাছি আসলাম ,ঠিক তখনই "দুর্নীতি "নামক বিষাক্ত সাপের ছোবলের সম্মুখীন হতে হল আমাকে। আসলে ছোটবেলা থেকেই খুব ইচ্ছে ছিল বড় হয়ে ডিফেন্সে চাকরি করব। আমার মায়েরও খুব স্বপ্ন ছিল যে তার ছেলে বড় হয়ে পুলিশ অফিসার হবে। কিন্তুু তার সে স্বপ্ন আজও পূরন করতে পারিনি। জানি না, ভবিষ্যতেও পারব কিনা। কারন ঘুষবিহীন সরকারি যেকোন চাকরির কথা চিন্তা করা নিতান্ত পাগলের পাগলামি ছাড়া আর কিছুই নয়। এ কথার প্রেক্ষিতে একটি বাস্তব অভিজ্ঞতার কথা বলি;তখন আমি সবে...
প্রকাশকাল 17/11/2016, 14:05 লিখেছেন Kazi Mijanur Rahman
55555
107
বিশ্ব ঐতিহ্যের গৌরবময় স্থানে জায়লা দখল করে আছে আমাদের সুন্দরবন।  আর সুন্দরবনকে ঘিরে আমার ধারনা ব্যক্ত করার চেষ্টা করছি... সিডর একটি আতঙ্কের নাম ! আজও বুক কেপে ওঠে সিডরের তান্ডবের কথা মনে পড়লে । ১৫ নভেম্বর ২০০৭, উপকূলবর্তি জেলা গুলোতে  আঘাত হানে সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় সিডর। কয়েক হাজার মানুষ মারা যায়। যারা ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান তারাও অসহায় ভাবে বেঁচে থাকে। ক্ষয় - ক্ষতি আরও হতে পারতো যদি কিনা সুন্দরবন না থাকতো।  সুন্দরবন আছে বিধায় আমরা এখনো টিকে আছি । সেই সুন্দরবন ধংশের পথে যাচ্ছে...... বিপন্ন...
প্রকাশকাল 16/11/2016, 13:31 লিখেছেন Kazi Mijanur Rahman
55555
138
আলোকবর্তিকা একটি সপ্ন , একটি চেতনা বিকাশের নাম । আলো যেমন অন্ধকার দুর করে এবং সাহস যোগায় ঠিক তেমনি ভাবে আলো আর ভালবাসা নিয়ে মানুষের পাশে দাড়ায় আলোকবর্তিকা।  আলোকবর্তিকা একটি অমুনাফাভোগী সামাজিক সংস্থা,অরাজনৈতিক, অমুনাফাভোগী সামাজিক সংগঠন। বাগেরহাট সদরের স্থানীয় যাত্রাপুর ইউনিয়ন ও আশপাশের তরুণদের স্ব সামাজিক দায়বদ্ধতায় অনুপ্রানিত হয়ে " আলোকবর্তিকা" নামক সংগঠনটি দাড় করানো হয়েছে । আলোকবর্তিকার সদস্য হিসেবে আমরা  আশা করি আমাদের দ্বারাই আমাদের এলাকার উন্নয়ন সম্ভব। সে লক্ষে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। স্বেচ্ছাসেবার মাধ্যমে...
প্রকাশকাল 14/11/2016, 01:16 লিখেছেন Md. Suruj Khan
55555
212
নিজের গায়ে হলুদের জন্য বসবো এমন সময় জুনিয়র এক ছেলের ফোন। কি ব্যাপার জানতে চাইলে, জানালো একটি মেয়ের বিয়ে, মেয়েটিকে আমি চিনি। আমার ছাত্রী, এসএসসি পাস করে উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তি হবে। কিন্তু ভর্তির আগেই বিয়ে। মেয়েটি যথেষ্ট মেধাবী। বললাম, আমি এখন নানা বাড়ী গায়ে হলুদের জন্য এসেছি, সব আয়োজন শেষ। এর মধ্যে বোনের চিৎকার, তোমার সব সময় ব্যস্ততা, নিজের বিয়ের সময়ও বাল্য বিয়ে আটকাতে হবে! তাড়াতাড়ি আসো, সবাই বসা। আমাকে যেতে হবে, না যাওয়াটা অভদ্রতা, কিন্তু বাল্য বিবাহ বন্ধ করাটা নাগরিক হিসাবে আমার দায়িত্ব।ঐ ছেলেকে স্থানীয় চেয়ারম্যানের ফোন নম্বর...
প্রকাশকাল 12/11/2016, 13:33 লিখেছেন kazimijan
55555
179
বৈচিত্র্যময় এই পৃথিবী বড়ই অদ্ভুত,,, জীবন পরিচালনার জন্য মানুষকে অনেক কিছু করতে হয়। যে যেমন ভাবে পারে,  সেভাবে সে তার জীবিকা নির্বাহ করে। পেশাগত জীবনে পেশার মান বজায় রাখার জন্য পেশাগত কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি করে। কেউ তার ভালো কাজের মাধ্যমে নিজেকে পরিবিষ্ট করতে চাইলেও তার মূল্যায়ন কম থাকে বাহ্যিক ভাবে।  একটি অফিসে একজন কর্মকর্তা ভালো হলে সে টিকে থাকতে পারে না। কারন, অন্য কর্মকর্তাদের কাছে সে দৃশ্যগত শত্রু হিসেবে বিবেচিত। সুতরাং,  অন্যরা লেগে থাকে তাকে সরানোর জন্য। তখন অনেকের চাপে পড়ে তাকে বাধ্য করা হয়,...
প্রকাশকাল 29/10/2016, 21:02 লিখেছেন Md. Suruj Khan
55555
152
১০ অক্টোবর পূজার ছুটি থাকায় কোন কাজ নেই, উদ্দেশ্য শুধু ঘুমাবো। কিন্তু সকালেই শ্বশুরের ফোন, কথার সার সংক্ষেপ, তাঁর জমির দাখিলা কাটা দরকার, ইউনিয়ন ভূমি অফিসের নায়েবরা প্রচুর ঘুষ দাবী করে, তাঁর সাথে আমাকে ভূমি অফিসে যেতে হবে। আমিও রাজি হলাম, প্রথমত আমাকে মোটামুটি চিনে, অফিসের কাজে দু’দিন গিয়েছি ভূমি অফিসে, দ্বিতীয়ত ঐখানে যারা প্রতিনিয়ত যাতায়াত করেন তারাও আমার কাজের ক্ষেত্র সম্পর্কে জানে, তৃতীয়ত নায়েব আমার এক আত্নীয়ের দূর সম্পর্কের আত্নীয়। অতএব, ঘুষ চাওয়ার প্রশ্ন-ই ওঠে না।ঘুম বাদ দিয়ে শ্বশুরের অপেক্ষা করতে লাগলাম, বাজারে গিয়ে...
প্রকাশকাল 29/10/2016, 20:22 লিখেছেন Md. Suruj Khan
55555
210
অনেক সভা-সেমিনার, মানববন্ধন, প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত থাকার সৌভাগ্য হয়েছে। কিন্তু গত ২৭-১০-২০১৬ইং এর বন্ধন ছিলো একেবারেই ভিন্ন ধরণের। ভিন্ন মাত্রার প্রতিবাদ ও ন্যায্য দাবি নিয়ে ছিলো আমাদের নৌকাবন্ধন বা নৌকা র‌্যালী, যা-ই বলি না কেন। সকালে বৃষ্টির কারণে আমদের প্রোগ্রাম বাতিল হওয়ার উপক্রম।বশির ভাইকে ফোন দিতে বললেন, নৌকাবন্ধন না হোক আলোচনা সভা হবে, কিন্তু কিছু তো একটা হবে।তখনও ঝিরিঝিরি বৃষ্টি পড়ছে, তাই মাথায় নিয়ে রওনা দিলাম টিআইবি অফিসের উদ্দেশ্যে। অটো রিক্সায় কিছুটা ভিজে যখন বাগেরহাটের কাছাকাছি, তখন বৃষ্টি নেই। বশির ভাই জানালেন...
প্রকাশকাল 26/10/2016, 11:14 লিখেছেন Mahadir Omer Fahad
44444
176
                        'যোগাযোগ' এবং রবীন্দ্র-রাজ্য ভ্রমন         কেউ কেউ মন্তব্য করেন, "রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সকল সৃষ্টির মাঝে দুর্বলতম দিক, তার উপন্যাস।" অর্থাৎ রবি বাবুর উপন্যাসগুলো তার কবিতা, ছোটগল্প, নাটক, গান, প্রবন্ধ এবং চিত্রকলার তুলনায় সবথেকে অপরিপক্ক। এটা মুষ্টিমেয় কিছু মানুষের আবেগসর্বস্ব, অপ্রজ্ঞাসুলভ, সাম্প্রদায়িক মনের কথা। রবীন্দ্র-জীবনীকার প্রভাত কুমার মূখোপাধ্যায় থেকে শুরু করে ওপার বাংলার শঙ্খ ঘোষ, যোমনীকান্ত সোম এবং এপারের আনিসুজ্জামান, আহমদ মাওলার মত রবীন্দ্র-গবেষকগন দ্ব্যর্থহীনভাবে স্বীকার করেন,...
প্রকাশকাল 21/10/2016, 23:59 লিখেছেন Kazi Mijanur Rahman
44444
145
রাস্তা দিয়ে হেটে যাওয়ার সময় যদি কোনো কিছু যেমন: ইট , গাছের ঢাল সামনে থাকে তখন মনে হয় এটি সরিয়ে ফেলি। কারণ, এটি জনগণের চলার পথে বাধা সৃষ্টি করে ।যখন,এটি সরাতে পারি তখন মনে হয় আমি সফল হয়েছি। এটিই সফলতা। মুল সফলতার কথায় আসা যাক-টিআইবির অনুপ্রেরণায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) স্থানীয় ভাবে বিভিন্ন কর্মকান্ডের সাথে যুক্ত হয়ে বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করে সফলতার মুখ দেখতে পারছে ।ঠিক তারই ধারাবাহিকতায় সনাক বাগেরহাটে ইয়েস গ্রুপের সদস্য হিসেবে বাগেরহাট সদরের সিংড়াই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মা ও অভিভাবক সমাবেশ ,এসএমসি সভার...
প্রকাশকাল 16/10/2016, 23:35 লিখেছেন Md. Suruj Khan
55555
137
খুলনা বিভাগে পরপর স্বাস্থ্য খাতে দু’টি ঘটনা যথেষ্ট ভাবিয়ে তুলেছে। একটি মাছ প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানার পিছনে নকল ঔষুধ তৈরির কারখানা ধরা পড়া এবং আর একটি হলো খুলনার অন্যতম বেসরকারি ক্লিনিক গাজী মেডিকেল কলেজে (সার্জিক্যাল) র‌্যাবের অভিযান ও সেখান থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ রক্ত, প্যাথলজিক্যাল ঔষুধ (রি-এজেন্ট) এবং নানা অনিয়মের অভিযোগ।বাংলা নিউজ 24.কম পড়ে জানলাম, যে নকল ঔষুধ তৈরির কারখানাকে সিলগালা করা হয়েছে তাদের ঔষুধ নাকি মিডফোর্ডসহ বিভিন্ন ফার্মেসীতে বিক্রয় হতো। এখন কথা হলো, ডাক্তার পেসক্রিপশন দেন, আমরা ঔষুধ ক্রয় করি নকল। আরোগ্য লাভ তো...
প্রকাশকাল 15/10/2016, 17:25 লিখেছেন Mdmehedi Hasan Sumon
55555
122
সমস্যা হিসাবে দুর্নীতি কতটা প্রকট তা বোঝাবার জন্য বিভিন্ন গবেষণা করা হচ্ছে।সেই সমস্ত গবেষণায় থাকছে বিভিন্ন ধরেণের তথ্য উপাত্ত। থাকছে কিভাবে কিভাবে দুর্নীতি হয়, কারা সেই দুর্নীতি বেশি করছে প্রভৃতি বিষয়। খাত হিসাবে কোন সেবা খাতে বেশি দুর্নীতি হচ্ছে এমন সব গবেষণার ফলাফল আমরা দেখতে পাচ্ছি।সরকারী মহলের টনক নাড়ানোর চেষ্টাও করা হচ্ছে এসবের মধ্য দিয়ে। নিঃসন্দেহে মানুষের সচেতনতাও বাড়ছে ।এর প্রভাব সমাজে কেমন তারও একটা ধারণা আমরা দাঁড় করানোর চেষ্টা করছি। কিন্তু ধরে ধরে কোন সমাজে, কোন কোন মানুষের উপরে কি ধরণের প্রভাব পড়ছে তা যেমন...
প্রকাশকাল 11/10/2016, 23:55 লিখেছেন Md. Suruj Khan
55555
125
উইকিপিডিয়ার তথ্য মতে 15,15,815 জন মানুষের বসবাস বাগেরহাট জেলায়। এই জেলার সবচেয়ে বড় স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র হচ্ছে “বাগেরহাট সদর হাসপাতাল।” সাধারণত সরকারি হাসপাতালে সেবা গ্রহণের নিমিত্তে দরিদ্র জন সাধারণের আগমণ ঘটে। যারা মোটা অংকের ফিস দিয়ে প্রাইভেটভাবে ডাক্তার দেখাতে সমর্থ নন, তারাই প্রতিনিয়ত এখানে আসেন। গত 09.10.2016 তারিখ রাত আটটার দিকে ব্যক্তিগত কারণে সদর হাসপাতাল গিয়েছিলাম। বের হওয়ার সময় চোখ আটকে যায় নারী ও শিশুদের টিকিট কাউন্টারের উপরে কম্পিউটার কম্পোজ করে লেখা “অত্র হাসপাতালে কোন শিশু কনসালটেন্ট নেই”। এর মানে কি দাঁড়ায়? যে...